নির্মিতিবাংলাভাবসম্প্রসারণ

ভাবসম্প্রসারণঃ জীবনের মূল্য আয়ুতে নহে, কল্যাণপুত কর্মে

জীবনের মূল্য আয়ুতে নহে, কল্যাণপুত কর্মে

আজকের পোস্টে তোমাকে স্বাগতম। আজকের এই পোস্টে আমরা একটি ভাবসম্প্রসারণ দেখব – জীবনের মূল্য আয়ুতে নহে, কল্যাণপুত কর্মে। এই ভাবসম্প্রসারণটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি ভাবসম্প্রসারণ। এটি অনেকবার পরীক্ষায় কমন পড়ে।

তুমি যেই শ্রেণিতেই পড়োনা কেন – এই ভাবসম্প্রসারণটি যদি তুমি মুখস্ত রাখো তাহলে তোমার পরীক্ষায় কমন পড়ার চান্স অনেক বেশি। আর এইজন্যই আজকে আমরা একটি খুবই সহজ এবং মুখস্ত করার মতো ভাবসম্প্রসারণ নিয়ে এসেছি।

তাহলে চলো, শুরু করা যাক।

জীবনের মূল্য আয়ুতে নহে, কল্যাণপুত কর্মে

মূলভাব : কর্মগুণেই মানুষের শ্রেষ্ঠত্ব স্বীকৃত হয়। সুতরাং কীৰ্ত্তিহীন বার্ধক্য মূল্যহীন।

সম্প্রসারিত ভাব : মানুষের জীবনের মূল্যায়ন কর্মগুণেই নিরূপিত হয়। স্বল্পায়ু জীবনে মানুষ মহৎ এবং সৎকর্মের মাধ্যমে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখে। পৃথিবী থেকে মানুষ একদিন চিরবিদায় নিয়ে চলে যায় কিন্তু পেছনে থেকে যায় তার কর্মের যশোগাথা। মানুষের জীবনের আয়ুর বিস্তার নিয়ে মূল্যায়ন করা যায় না। দীর্ঘায়ু জীবনেও অনেককে দেখা যায়; যার সৎ এবং মহৎকর্মের খাতা শূন্যতার ধূসর। জীবনে যদি কোনো সেবামূলক কাজের সঞ্চয় না থাকে তবে সে জীবন অর্থহীন। সৎকর্মহীন দীর্ঘায়ু জীবনের কোনো মূল্য নেই। পক্ষান্তরে, স্বায়ু জীবন যদি মহৎ ও কল্যাণমূলক কর্মে ভরপুর থাকে তবে সেই স্বপ্নায়ু জীবনই ধন্য। ভিন্নভাবে বলা যায় — মহাকালের তুলনায় মানুষের আয়ুষ্কাল অতিশয় নগণ্য। তবু জীবনে যিনি মানুষসহ অন্যান্য সৃষ্টির কল্যাণে নিজেকে কর্মমুখর রেখেছেন সেই মহৎ ব্যক্তির কাজের অবদান বিশ্বের বুকে ছড়িয়ে পড়ে। মানুষের কীর্তিকে অমরতা দান করে। কর্মীর কর্মগাঁথা মহান গৌরবে স্বল্প জীবনের সীমাকে অতিক্রম করে পৃথিবীর ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকে। মানুষের অমরত্ব ঘোষণা করে। মানুষের এ অমরত্ব বয়সের দীর্ঘ পরিসরে নয় কর্ম-ত্যাগ ও সৃষ্টিকে বহন করেই নিরূপিত হয় ।

মন্তব্য : জীবনের যে মহৎ অর্জন তা কর্ম দ্বারাই নিরূপিত হয়। তাই সৎকাজে নিজেকে নিয়োজিত রাখা উচিত ।

আরও পড়ুনঃ

সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য তোমাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আশা করছি আমাদের এই পোস্ট থেকে ভাব সম্প্রসারণ যেটি তুমি চাচ্ছিলে সেটি পেয়ে গিয়েছ। যদি তুমি আমাদেরকে কোন কিছু জানতে চাও বা এই ভাব সম্প্রসারণ নিয়ে যদি তোমার কোনো মতামত থাকে, তাহলে সেটি আমাদের কমেন্টে জানাতে পারো। আজকের পোস্টে এই পর্যন্তই, তুমি আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে আমাদের বাকি পোস্ট গুলো দেখতে পারো।

Related posts

রচনাঃ কর্মমুখী শিক্ষা

Swopnil

আবেদন পত্রঃ ছাত্র কল্যাণ তহবিল থেকে আর্থিক সাহায্য চেয়ে প্রধান শিক্ষকের নিকট দরখাস্ত লেখ

Swopnil

রচনাঃ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

Swopnil

Leave a Comment