বাংলাঅনুচ্ছেদনির্মিতি

অনুচ্ছেদঃ গ্রাম্যমেলা

অনুচ্ছেদঃ গ্রাম্যমেলা

আজকের পোস্টে তোমাকে স্বাগতম। আজকের এই পোস্টে আমরা একটি  অনুচ্ছেদ দেখব – গ্রাম্যমেলা। এইটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি অনুচ্ছেদ। এটি অনেকবার পরীক্ষায় কমন পড়ে।

তুমি যেই শ্রেণিতেই পড়োনা কেন – এইটি যদি তুমি মুখস্ত রাখো তাহলে তোমার পরীক্ষায় কমন পড়ার চান্স অনেক বেশি। আর এইজন্যই আজকে আমরা একটি খুবই সহজ এবং মুখস্ত করার মতো অনুচ্ছেদ নিয়ে এসেছি।

তাহলে চলো, শুরু করা যাক।

গ্রাম্যমেলা

গ্রাম্যমেলা হলো আবহমান গ্রামবাংলার সর্বজনীন লোকজ উৎসবগুলোর মধ্যে অন্যতম। এ মেলা স্বতন্ত্র গ্রামীণ সংস্কৃতির পরিচয় বহন করে। মেলা গ্রামের সকল ধর্ম, বর্ণ ও গোত্রের সকল বয়সী মানুষের মধ্যে আনন্দের আমেজ ও প্রাণ চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে। এ মেলাকে কেন্দ্র করে, বিশেষ করে গ্রামীণ শিশু ও কিশোরদের জন্য এটি হলো অপরিমেয় আনন্দের উপলক্ষ। এককথায় গ্রাম্যমেলা হলো ধর্ম, বর্ণ, নারী-পুরুষ নির্বিশেষে গ্রামের সকল মানুষের আনন্দময় একটি বিশাল মিলনস্থল। এটি সাধারণত গ্রামের হাটে, বাজারে, নদীতীরে কিংবা মন্দিরের আঙ্গিনায় বসে। অনেক সময় বিশাল মাঠে কিংবা উন্মুক্ত প্রান্তরে বটগাছকে কেন্দ্র করে এ মেলা বসে। সাধারণত ধর্মীয় উৎসব বা কোনো মহৎ ব্যক্তির জন্মবার্ষিকীতে অথবা নতুন বছরের শুরুতে বা বিশেষ কোনো মাসকে কেন্দ্র করে গ্রাম্যমেলা অনুষ্ঠিত হয়। আমাদের দেশে বাংলা নববর্ষকে কেন্দ্র করে বৈশাখ মাসে এ মেলার আয়োজন করা হয়ে থাকে। গ্রাম্যমেলার নির্দিষ্ট কোনো সময় নেই। একদিন থেকে শুরু করে মাসব্যাপীও এ মেলা হয়ে থাকে। গ্রাম্যমেলায় বিভিন্ন পেশার লোকজন হাতের গ্রাম্যমেলা থেকে কাপড়-চোপড়, সস্তা সৌখিন সামগ্রী বাসন-পত্র, আকর্ষণীয় বাঁশ ও বেতের সরঞ্জামাদি কিনে থাকে। শিশু- তৈরি জিনিস বিক্রির জন্য উপস্থিত হয়। নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে দোকানদারেরা সারিবদ্ধভাবে বসে থাকে। মানু কিশোরেরা মেলা থেকে বিভিন্ন ধরনের খেলনা ও বেলুন কিনে থাকে। গ্রাম্যমেলায় কুটির শিল্প, কুমার, তাঁতি এবং চাষিদের তৈরি জিনিসপত্রের চাহিদা অনেক বেশি বলে তাদের এ মেলার প্রতি অনেক আগ্রহ থাকে। এ মেলার অন্যতম আকর্ষণ হলো যাত্রা, না, পুতুলনাচ ও নাগরদোলা। এগুলো গ্রাম্য মানুষদের অনেক আনন্দ দেয়। নাগরদোলার শব্দ ও শিশু-কিশোরদের হৈ-হুল্লোড় এ মেলার আবেদন আরো বাড়িয়ে দেয়। তবে অনেক সময় গ্রাম্যমেলায় যাত্রা ও জুয়াড় মাধ্যমে গ্রামবাসীদের অর্থনৈতিক ক্ষতি ও নৈতিকতা বিনষ্ট হয়। সর্বোপরি গ্রাম্যমেলা একদিকে যেমন গ্রামের মানুষের আনন্দের খোরাক যোগায় অন্যদিকে এর মাধ্যমে গ্রামের মানুষের মধ্যে অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও ভ্রাতৃত্ববোধ দৃঢ় হয় ।

See also  অনুচ্ছেদঃ রিকশাওয়ালা

সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য তোমাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আশা করছি আমাদের এই পোস্ট থেকে যে আবেদন পত্রটি তুমি চাচ্ছিলে সেটি পেয়ে গিয়েছ। যদি তুমি আমাদেরকে কোন কিছু জানতে চাও বা এই পত্র নিয়ে যদি তোমার কোনো মতামত থাকে, তাহলে সেটি আমাদের কমেন্টে জানাতে পারো। আজকের পোস্টে এই পর্যন্তই, তুমি আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে আমাদের বাকি পোস্ট গুলো দেখতে পারো।

Related posts

ভাবসম্প্রসারণঃ সকলের তরে সকলে আমরা প্রত্যকে আমরা পরের তরে

Swopnil

অনুচ্ছেদঃ চায়ের দোকান

Swopnil

রচনাঃ বাংলাদেশের ফল

Swopnil

Leave a Comment