নির্মিতিবাংলাসারমর্ম

সারাংশ ও সারমর্ম লেখার নিয়ম

সারাংশ ও সারমর্ম লেখার নিয়ম

আসসালামু ওয়ালাইকুম, সবাই কেমন আছেন? আশা করি ভাল আছেন। আজকের এই পোস্টে আমরা খুবই একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করব যেটা হচ্ছে “সারাংশ সারমর্ম লেখার নিয়ম“।

আমাদের স্কুল জীবনের বেশ অনেকটা সময় আমাদের এই বাংলা ব্যাকরণের নির্মিতি অংশটা অনেক কষ্টে মুখস্ত করতে করতে কেটে যায়। কিন্তু, এই নির্মিতি অংশের একটি খুবই সহজ বিষয় হচ্ছে সারাংশ এবং সারমর্ম। আমরা যদি এই সারাংশ এবং সারমর্ম দুই থেকে তিন লাইন ভালো করে লিখতে পারি তাহলে কিন্তু আমাদের পরীক্ষায় খুব ভালো একটা নাম্বার আনা সম্ভব।

এই পোস্টে আমরা দেখব, আপনি কিভাবে সারাংশ এবং সারমর্ম লিখবেন যেটার মাধ্যমে আপনি আপনার পরীক্ষার সব থেকে ভালো নাম্বার করতে পারবেন এবং এটির মাধ্যমে আপনি আপনার লেখার মান কে অনেক উন্নত করতে পারবেন।

সারাংশ ও সারমর্ম লেখার নিয়ম

কোনো গদ্য বা পদ্য রচনার মূলভাব বা বক্তব্যকে অল্প কথায় প্রকাশ করার নাম সারমর্ম বা সারাংশ লিখন। সারমর্ম ও সারাংশের মধ্যে সূক্ষ্ম পার্থক্য আছে। তবে প্রচলিত রীতিতে পদ্যের ভাব-সংক্ষেপ বোঝাতে সারমর্ম ও গদ্যের বক্তব্য- সংক্ষেপকে সারাংশ কথাটি দিয়ে বোঝানো হয়। সারাংশ ও সারমর্ম লেখার সময় নিচের কথাগুলো মনে রাখবে:

১. পঠন: যে অংশের সারমর্ম ও সারাংশ লিখবে তা বার বার মন দিয়ে পড়বে। মূলভাবটুকু অনেক সময় উপমা, রূপক বা অলংকারের আড়ালে থাকে। তাই উপমা, রূপক, অলংকার ইত্যাদি বাদ দিয়ে মূলভাবটি বুঝে নিয়ে তা লিখবে ।

২. বাড়তি বিষয় বর্জন: মূলভাবকে যেহেতু খুব সংক্ষেপে লিখতে হয় সেজন্য বাড়তি কিছু কথা থাকলে তা বাদ দেবে।

৩. প্রসঙ্গ: মূলভাবের বাইরে অন্য কিছুর অবতারণা করা উচিত নয়। রচয়িতার নাম জানা থাকলেও উল্লেখ করবে না। ‘কবি বলেছেন’ জাতীয় কথাও লিখবে না।

৪. অনুচ্ছেদ: সারমর্ম ও সারাংশ একটি অনুচ্ছেদে লিখবে।

৫. প্রারম্ভিক বাক্য: প্রারম্ভিক বাক্যটি গোছালো ও আকর্ষণীয় করতে চেষ্টা করবে।

৬. প্রত্যক্ষ উক্তি: সারাংশে প্রত্যক্ষ উক্তি থাকলে তা পরোক্ষ উক্তিতে সংক্ষেপ করে লিখবে।

৭. পুরুষ: সারমর্ম ও সারাংশের বক্তব্যে উত্তম পুরুষ (আমি/আমরা) বা মধ্যম পুরুষ (তুমি/তোমরা) দিয়ে বাক্য কখনোই লিখবে না ।

৮. উদ্ধৃতি: মূল অংশে উদ্ধৃতি থাকলে তার পুনরাবৃত্তি করবে না। প্রয়োজনে তার ভাবটুকু উদ্ধৃতিচিহ্ন ছাড়া লিখবে ।

৯. ভাষা: সারমর্ম ও সারাংশ যথাসম্ভব সহজ ভাষায় ও সরল বাক্যে গুছিয়ে লিখতে চেষ্টা করবে।

আশা করি আজকের সারাংশ ও সারমর্ম লেখার নিয়ম সম্পর্কিত এই পোস্টটি আপনার কাছে ভালো লেগেছে। যদি আসলেই এই পোস্টটি ভালো লেগে থাকে, তাহলে আপনি আমাদেরকে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন। আপনি যদি চান আমরা সকল ধরনের সারাংশ এবং সারমর্ম আমাদের ওয়েবসাইটে আপলোড করি সেক্ষেত্রেও আমাদেরকে কমেন্টে জানাতে পারবেন।

Related posts

অনুচ্ছেদঃ তথ্য প্রযুক্তি

Swopnil

ভাবসম্প্রসারণঃ দণ্ডিতের সাথে দণ্ডদাতা কাঁদে যবে সমান আঘাতে, সর্বশ্রেষ্ঠ সে বিচার

Swopnil

রচনাঃ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

Swopnil

Leave a Comment